শনিবার, জানুয়ারি ২১, ২০১৭


Find us on

সৎ মায়ের অত্যাচার থেকে বাঁচালো প্রতিবেশীরা

কলকাতা, ১৮ ডিসেম্বরঃ দিনরাত চলে মারধর। কখনও বাবার হাতের লাঠির বাড়ি আবার কখনও বা মায়ের হাতের মার বা কঞ্চির বাড়ি। এটাই ছিল সাত বছরের ছোট্ট রিয়ার (নাম পরিবর্তিত) সঙ্গে হওয়া প্রতিদিনের ঘটনা। মা মারা যাওয়ার পর থেকেই থাকত হোমে। বাবা শুকদেব দাস দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন দিপালী দাসকে। এরপরই মাসকয়েক আগেই হোম থেকে মেয়েকে সল্টলেকের বাড়িতে ফিরিয়ে আনেন শুকদেব বাবু। শুরু হয় সৎ মায়ের অত্যাচার। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, আছাড় মারা পাশবিক অত্যাচার করা হয় রিয়ার ওপর।

নিত্যদিনের মত কালও একইভাবে মারধর শুরু করলে প্রতিবেশীরা ঘটনাটি লক্ষ করে এবং পুলিশে খবর দেয়। মেয়েটিকে সেখান থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় কাউন্সিলার নির্মল দত্তের কাছে আনা হয়। আজ সকালে প্রতিবেশীরা শুকদেববাবু ও দিপালীদেবীর বিরুদ্ধে দক্ষিণ বিধাননগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনার পুরোটা স্বীকার না করলেও কিছুটা স্বীকার করেছে ওই দম্পত্তি।