শনিবার, জানুয়ারি ২১, ২০১৭


Find us on

চূড়ান্ত অনিয়ম শিলিগুড়ির প্যাথলজিকাল ল্যাবগুলিতে

উত্তরবঙ্গ সংবাদ পোর্টাল, শিলিগুড়িঃ শহর শিলিগুড়ির বুকে ব্যাঙের ছাতার মত যেখানে সেখানে গজিয়ে ওঠা ডায়াগ্নোস্টিক সেন্টার তথা প্যাথলজিকাল ল্যাব খুলে সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করছে একদল ব্যবসায়ী। রক্তের একই পরীক্ষা করতে শহরের বিভিন্ন ল্যাবে টাকা নেওয়া হচ্ছে এক এক রকম। ক্লিনিকাল এস্টাবলিশমেন্ট অ্যাক্ট অনুযায়ী কোন পরীক্ষার জন্য কত টাকা ফি নেওয়া হবে তার একটি ইউনিফর্ম চার্ট ঝোলানো বাধ্যতামূলক। কিন্তু শিলিগুড়ির কোনো প্যাথ ল্যাবে এই চার্ট আপাতত চোখে পড়েনি।

ল্যাবে সর্বক্ষণের জন্য একজন মেডিকাল অফিসের, একজন রেসিডেন্সিয়াল মেডিকেল অফিসার এবং নমুনা সংগ্রহের জন্য প্রশিক্ষিত টেকনিশিয়ান থাকা বাধ্যতামূক। কিন্তু কোনো ডায়াগ্নোস্টিক সেন্টারেই এই নিয়ম মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ বিভিন্ন মহলে। অভিযোগ, ১২ ঘন্টার আগে কোনো সেন্টারেই রিপোর্ট মেলে না। এর পেছনে মূল কারণ হিসাবে ডাক্তারদের খামখেয়ালিপনার উল্লেখ করা হয়েছে। এক এক জন ডাক্তার ১০-১২টি ল্যাবের দায়িত্বে থাকায় এতটা সময় লেগে যাচ্ছে বলে অভিযোগ।

শিলিগুড়ির অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক মহেশ্বর মোদি এবং মহকুমাশাসক পানিক্কর হরিশঙ্কর বলেছেন, ‘আমরা শিলিগুড়িতে যৌথভাবে নার্সিংহোম এবং ডায়াগ্নোস্টিক সেন্টারগুলিতে অভিযান চালাচ্ছি। অইন ভঙ্গ করলে প্রত্যেকের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এমনকি সংশ্লিষ্ট সংস্থার লাইসেন্স বাতিলেরও হুঁশিয়ারি দিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর।