fbpx

Find us on

তুরিনে রোনাল্ডো-ম্যাজিকে দুরন্ত প্রত্যাবর্তন জুভেন্টাসের
আন্তর্জাতিক
খেলা
শিরোনাম

তুরিন, ১৩ মার্চঃ আরও এক প্রত্যাবর্তনের রাত দেখল ফুটবল বিশ্ব। সৌজন্যে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ও জুভেন্টাস। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম পর্বে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের কাছে ২-০ গোলে হারার পর দ্বিতীয় পর্বে তাদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে পরের পর্বে চলে গেল জুভেন্টাস। সৌজন্যে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পর্তুগিজ মহাতারকার অষ্টম হ্যাটট্রিক।

শেষ বাঁশি বাজার আগে লড়াই চালানো ক্রিশ্চিয়ানোর ট্রেড মার্ক। এর আগে ২০১৪ সালে সুইডেনের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের যোগত্যা অর্জন পর্বের প্লে-অফ বা ২০১৫-১৬ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথমপর্বে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়েছিলো রোনাল্ডোর দল। দুবারই দ্বিতীয় পর্বে হ্যাটট্রিক করে দলকে পরের পর্বে নিয়ে গিয়েছেন তিনি। ফের এমনই এক অতিমানবীয় পারফরম্যান্সের সাক্ষী হল ফুটবল বিশ্ব। প্রথম পর্বে মাদ্রিদের দলটি ঘরের মাঠে ২-০ গোলে জেতায় অনেকেই ভেবেছিলেন, এবার কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছাতে পারবে না জুভেন্টাস। কিন্তু অন্যরকম ভেবেছিলেন রোনাল্ডো ও তাঁর সতীর্থরা। খেলার শুরু থেকেই আক্রমণে যায় জুভেন্টাস। ৪ মিনিটে ডিফেন্ডার চিয়েল্লিনি গোল করলেও অ্যাটলেটিকোর গোলরক্ষক ওব্লাককে রোনাল্ডো ফাউল করায় তা বাতিল হয়ে যায়।

এরপর ২৭ মিনিটে ফ্রেডরিকোর ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে জুভেন্টাসকে এগিয়ে দেন রোনাল্ডো। বিরতির চার মিনিট পর ক্যান্সেলোর ক্রস থেকে দলের ও নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন রোনাল্ডো। ৮৬ মিনিটে অ্যাটলেটিকোর কোরেরা জুভেন্টাসের ফ্রেডরিকোকে ধাক্কা মারলে পেনাল্টি পায় জুভেন্টাস। তা থেকে গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক সম্পূর্ণ করার পাশাপাশি দলের পরের পর্বে যাওয়া নিশ্চিৎ করেন রোনাল্ডো।

এদিন শুরু থেকে অতি রক্ষণাত্বক ফুটবল খেলছিল অ্যাটলেটিকো। নিজেদের মধ্যে পাস খেলে খেলার গতি কমানোর স্ট্র্যাটেজি নিয়েছিলেন মাদ্রিদের দলটির ফুটবলাররা। দুগোল খাওয়ার পর আক্রমণাত্বক ফুটবলে ফেরেন তাঁরা। কিন্তু তাতে ম্যাচের ফলে কোনো প্রভাব পড়েনি। এবছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে প্রত্যাবর্তনের ঝড় দেখেছে ফুটবল বিশ্ব। প্যারিস সাঁ জাঁ’র বিরুদ্ধে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড প্রথম পর্ব ২-০ গোলে হেরেও ৩-১ গোলে পরের পর্ব জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে গিয়েছে। একইভাবে আয়াখস ২-১ গোলে প্রথম পর্ব হেরে ৪-১ গোলে জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে।

এমনিতে অ্যাটলেটিকোর সঙ্গে রোনাল্ডোর সম্পর্ক খুবই ‘মধুর’। মাদ্রিদের দলটির বিরুদ্ধে হওয়া শেষ চারটি হ্যাটট্রিকের চারটিই করেছেন রোনাল্ডো। পাশাপাশি ২০১২-১৩ মরশুম থেকে এখনও পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউটে রোনাল্ডোর দলের কাছেই হেরেছে অ্যাটলেটিকো। অন্যদিকে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার জন্য এবছর রোনাল্ডোকে দলে নেয় জুভেন্টাস। এই ম্যাচে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, জুভেন্টাসের ওই সিদ্ধান্তে কোনো ভুল ছিল না।

তুরিনে রোনাল্ডো-ম্যাজিকে দুরন্ত প্রত্যাবর্তন জুভেন্টাসের