Find us on

হাসপাতালে দেরিতে আসায় চিকিৎসককে মারধর, ধৃত এক
উত্তর দিনাজপুর
উত্তরবঙ্গ

রায়গঞ্জ, ৯ অক্টোবরঃ হাসপাতালে দেরিতে আসার অভিযোগে চিকিৎসককে বেধড়ক মারধর করল রোগীর পরিজনেরা। সোমবার রাতে এই ঘটনায় রীতিমতো উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতাল চত্বরে।

ইটাহার থানার বৈদড়া চেকপোস্টের বাসিন্দা শুকতারা বেগম (২২) এদিন সকাল ১১টা নাগাদ প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে ভরতি হন। রোগীর পরিবারের অভিযোগ, চিকিত্সককে খবর দেওয়া হলেও সময়মতো তিনি হাসপাতালে আসেননি। এরপর রাত ৮টা নাগাদ ওই চিকিত্সক হাসপাতালে রাউন্ডে এলে হঠাত্ই তাঁর উপর চড়াও হন রোগীর পরিজনেরা। চিকিত্সককে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। কোনওমতে সেখান থেকে পালিয়ে যায় ওই চিকিত্সক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে রায়গঞ্জ থানার আইসির নেতৃত্বে বিরাট পুলিশ বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। চিকিত্সককে মারধরের অভিযোগে ওই মহিলার স্বামী সোনাল আলি সরকারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

হাসপাতাল সুপার গৌতম কুমার মণ্ডল বলেন, ‘ওই রোগীর পরিবারের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।’ ওই চিকিৎসক বলেন, ‘আমি সঠিক সময়ে হাসপাতালে গেলেও আমাকে বিনা কারণে মারধর করা হয়েছে। কোনক্রমে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে না এলে আমাকে মেরে ফেলা হত।’

সংবাদদাতাঃ বিশ্বজিৎ সরকার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *