Find us on

শীতকালে প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের বাড়তি যত্ন
অন্যান্য
জীবনযাপন

উত্তরবঙ্গ সংবাদ পোর্টালঃ শীতকালে সব ত্বকের জন্য চাই বাড়তি যত্ন। এইসময় তৈলাক্ত ত্বকও অনেকবেশি শুষ্ক হয়ে যায়। তাই এইসময় ত্বককে সব সময় ময়েশ্চারাইজ রাখতে হয়। বাজার ঘুরলে অনেক লোশন পাওয়া যায়। কিন্তু বেশিরভাগ সময় লোশন ব্যবহারে ত্বক কালো হয়ে যায়। কিন্তূ প্রাকৃতিক উপায়েও ত্বক ময়েশ্চারাইজ করা সম্ভব। এগুলি ত্বক কালো না করে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

. মধু এবং ডিমের কুসুমঃ শুষ্ক ত্বকের জন্য মধু এবং ডিমের কুসুম খুব ভাল প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার। সমপরিমাণের মধু এবং ডিমের কুসুম মিশিয়ে নিন। মুখ ও ঘাড়ে ভাল করে লাগিয়ে নিন। এরপর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২. অলিভ অয়েলঃ অনেকেই বডি লোশনের পরিবর্তে অলিভ অয়েল ব্যবহার করে থাকেন। এই অলিভ অয়েল শরীরের অন্যান্য অংশের পাশাপাশি মুখেও ব্যবহার করতে পারেন।

৩. মধু এবং দুধঃ ২ টেবিল চামচ মধু এবং ২ টেবিল চামচ দুধ মিশিয়ে নিন। এটি মুখে লাগান। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের টোনার এবং ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে থাকে।

৪. অ্যালোভেরা এবং দুধঃ অ্যালোভেরা পাতা থেকে জেল বের করে নিন। অ্যালোভেরা জেলের সাথে ২ টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে ব্যবহার করুন। ১০-১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালোভেরা ত্বকের শুষ্কতা দূর করে ত্বকের অন্যান্য সমস্যা দূর করে থাকে।

৫. টকদই এবং কলাঃ অর্ধেকটা কলা এবং ৪ টেবিল চামচ টকদই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার প্যাকটি ত্বকে ভাল করে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। কলা এবং টকদইয়ের মিশ্রণ ত্বক ময়েশ্চারাইজ করে। এর সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি করে দেয়।

যেকোন লোশন বা ক্রিম ত্বক কালো করতে পারে। কিন্তু ঘরোয়া এই ময়োশ্চারাইজগুলো ত্বক কালো করে না বরং নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।

শীতকালে প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের বাড়তি যত্ন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *