Find us on

ধর্মগুরু রাম রহিমকে দোষীসাব্যস্তের পর ভক্তদের বিক্ষোভ, হত ১৭
দেশ
প্রথম পাতা

নয়াদিল্লি, ২৫ আগস্টঃ ধর্ষণ মামলায় ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংকে দোষীসাব্যস্ত করেছে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত। এরপর থেকেই হরিয়ানার পাঁচকুলা এলাকায় বিক্ষোভ দেখাতে থাকে রাম রহিমের অনুগামীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি চালাতে বাধ্য হয় পুলিশ। হামলা চলাকালীন কমপক্ষে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। দুই শতাধিক বেশি মানুষ আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওই এলাকায় প্রায় ৬০০ সেনা পাঠানো হয়েছে। হরিয়ানা ও পঞ্জাবের বিভিন্ন এলাকায় উত্তেজনা ক্রমশই ছড়িয়ে পড়েছে। এই ঘটনার জেরে দিল্লি, পঞ্জাব ও হরিয়ানায় হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

আদালতে রায় ঘোষণার পরই পঞ্জাবের মালাউত রেল স্টেশন এবং পেট্রল পাম্পে আগুন ধরিয়ে দেন রাম রহিমের অনুগামীরা। একইরকম ঘটনা ঘটে ভাটিণ্ডাতেও। পাশাপাশি হরিয়ানার পাঁচকুলা সেক্টরেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষুব্ধ জনতার সঙ্গে পুলিশের খণ্ডযুদ্ধ বাধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায়। এমনকি শূন্যে কয়েক রাউন্ড গুলিও চালাতে বাধ্য হয় পুলিশ। রাজ্যে শান্তি ও ঐক্য বজায় রাখার আবেদন জানিয়েছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং ও হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খাট্টার।

১৯৯৯ সালে ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের বিরুদ্ধে দুই মহিলা ভক্তকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল। ২০০২ সালে ধর্মগুরু রাম রহিম সিংয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করে সিবিআই। ১৫ বছর পর এই মামলায় আজ সিবিআই-এর বিশেষ আদালত তাঁকে দোষীসাব্যস্ত করে। আগামী ২৮ আগস্ট সাজা ঘোষণা করবে বিশেষ আদালত। যদিও সমস্ত অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছিলেন ধর্মগুরু রাম রহিম সিং।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *