Find us on

রোগীমৃত্যুতে চিকিত্সার গাফিলতির অভিযোগ
উত্তরবঙ্গ
জলপাইগুড়ি

জলপাইগুড়ি, ১৩ সেপ্টেম্বরঃ ফের চিকিত্সার গাফিলতিতে রোগীমৃত্যুর অভিযোগ উঠল। গতকাল এই ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ায় জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে। হাসপাতাল সূত্রে খবর, মৃতের নাম ওমপ্রকাশ শা (২১)। তিনি জলপাইগুড়ি সমাজপাড়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন।

ওমপ্রকাশের পরিবারের সদস্যরা জানান, শরীরে অসহ্য যন্ত্রণা হওয়ায় তাঁকে গত সোমবার রাত ১১টা নাগাদ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। মঙ্গলবার সকাল থেকে অবশ্য অনেকটাই সুস্থ ছিলেন ওমপ্রকাশ। কিন্তু বিকেলের পর থেকে হঠাত্ই তাঁর পেটব্যথা শুরু হয়। অভিযোগ, সেই সময় কর্তব্যরত একজন নার্সকে বিষয়টি জানানো হলেও তিনি তাতে আমল দেননি। এমনকি, ওমপ্রকাশের পরিবারের সদস্যরা চিকিত্সককে ডেকে দেওয়ার জন্য ওই নার্সকে অনুরোধও করেন। কিন্তু তিনি সেই আবেদনও উপেক্ষা করেন। এরপর সন্ধ্যে সাতটা নাগাদ এক চিকিত্সক এসে ওই যুবককে কয়েকটি ইনজেকশন দেন। আর তার কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু হয় ওমপ্রকাশের।

এদিকে, ঘটনার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের বক্তব্য, সংশ্লিষ্ট নার্স ও চিকিত্সকের গাফিলতিতেই প্রাণ হারাতে হয়েছে ওমপ্রকাশকে। গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে সরব হন তাঁরা। এরপরই পৌঁছান কোতোয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকারও।

জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালের সুপার ডাঃ গয়ারাম নস্কর বলেন, ‘মৃতের পরিবার গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়েছেন। আমরা অবশ্যই বিষয়টি দেখবে। একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কারোর দোষ প্রমাণিত হলে, তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *