Find us on

তুমুল অশান্তি, স্ত্রীর ধর থেকে মুণ্ড আলাদা করে দিল স্বামী!
কোচবিহার
প্রথম পাতা

কোচবিহার, ১০ অগাস্টঃ পারিবারিক অশান্তির জেরে নিজের স্ত্রীকে নৃশংসভাবে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। নৃশংসভাবে কোপ মেরে স্ত্রীর ধড় থেকে মুণ্ড আলাদা করে দেওয়া হয়েছে। আজ সকালে ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের ১ নম্বর ডাওয়াগুড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের গয়েরগাড়ির দাসপাড়া এলাকায়। খবর পেয়ে মুণ্ডচ্ছেদ করা অবস্থায় মৃতা সবিতা রায়ের(৫০) দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কোচবিহারের এমজেএন হাসপাতালে পাঠিয়েছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত প্রমোদ চন্দ্র রায়(৭২) পলাতক। তাঁর খোঁজে চলছে তল্লাশি।

স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, বেলা ১১.৩০ নাগাদ গোয়ালা দুধ দিতে গিয়ে অনেক ডাকাডাকি করে। কিন্তু কোনো সাড়া না মেলায় ঘরে ঢুকে দেখেন সবিতাদেবীর রক্তাক্ত মৃতদেহ। এরপরই তিনি ব্যপারটি প্রতিবেশীদের জানান। পরে খবর দেওয়া হয়।

সূত্রের খবর, ওই দম্পত্তির তিন ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। ছোটো ছেলে ছাড়া সকলেই বিবাহিত। জানা গিয়েছে, প্রমোদবাবুর অবৈধ সম্পর্ক ছিল। মেয়ের জামাই বাপ্পা দেবনাথ জানান, বাড়িতে তাঁর শ্বশুর-শাশুড়ির মধ্যে প্রায়ই অশান্তি লেগে থাকত। প্রমোদবাবু প্রায়ই মারধোর করতেন সবিতাদেবীকে। তাই প্রতিবেশীদের ধারণা প্রমোদবাবুই খুন করেছে তাঁকে।

থানা সূত্রের খবর, ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে খুন করার জন্য ব্যবহৃত দা। জেলা পুলিশ সুপার অনুপ জয়সওয়াল বলেন, প্রাথমিক তদন্তে পারিবারিক অশান্তির জেরেই খুন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করা হবে। অভিযুক্ত পলাতক। তাঁর খোঁজে চলছে তল্লাশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *