বৃহস্পতিবার, জুলাই ২০, ২০১৭


Find us on

ভারতীয় বিজ্ঞানীদের আবিস্কার নতুন ছায়াপথপুঞ্জ সরস্বতী

পুনে, ১৪ জুলাইঃ ভারতীয় বিজ্ঞানীদের একটি দল প্রথমবার আবিস্কার করল কয়েকটি ছায়াপথের সম্মিলিত বিশাল সমষ্টি বা ‘সুপারক্লাস্টার’। যার নাম রাখা হয়েছে সরস্বতী। পুনের ইন্টার ইউনিভার্সিটি সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোনমি অ্যান্ড অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের বিজ্ঞানীরা আবিস্কার করেন এই ছায়াপথপুঞ্জ। পৃথিবী থেকে ৪,০০ বিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত এই সুপারক্লাস্টারটি। যার বয়স ১০ বিলিয়ন বছরেরও বেশি।

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ(আইআইএসইআর)-এর এক গবেষণাপত্রে জানানো হয়েছে, সুপারক্লাস্টাররা হল মহাজাগতিক দুনিয়ার সবচেয়ে বড়ো এবং সুসংহত কাঠামো। এগুলি অসংখ্য ছায়াপথ ও ছায়াপথ পুঞ্জের সমষ্টি, পরস্পরের সঙ্গে অভিকর্ষ বলের মাধ্যমে এরা যুক্ত এবং প্রায়শই নিজেদের আকারের চেয়ে কয়েকশো গুণ বেশি প্রসারিত হচ্ছে। অতি সাম্প্রতিক এই ছায়াপথের আলো পৃথিবীতে এসে পৌঁছেছে। ফলে এই গ্যালাক্সি অতীতে কেমন ছিল তা জানা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন পুনের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চের জনৈক পিএইচডি ছাত্র শিশির সাংখ্যায়ন। মহাকাশে এখনো পর্যন্ত আবিস্কার হওয়া ছায়াপথগুলির মধ্যে সরস্বতীর মতো এত বড়ো ছায়াপথ অত্যন্ত দূর্লভ বলে জানিয়েছেন তিনি।

জার্নালে প্রকাশিত পেপারটির প্রধান লেখক পুনের এই প্রতিষ্ঠানেরই গবেষক জয়দীপ বাগচি। তিনি ও শিশির সাংখ্যায়ন জানিয়েছেন, স্লোন ডিজিটাল স্কাই সার্ভেতে এই সুপারক্লাস্টারের খোঁজ পেয়েছেন তাঁরা। আশা করা হচ্ছে, এই আবিষ্কার হয়তো কোটি কোটি বছর আগে তৈরি হওয়া ম্যাটার-ডেনসিটি ক্লাস্টারের সৃষ্টি রহস্যভেদে সাহায্য করবে এবং বহু যুগ আগে মহাবিশ্ব কেমন ছিল তা জানতে সাহায্য করবে এই ছায়াপথ।