বুধবার, জুলাই ২৬, ২০১৭


Find us on

ব্যাটসম্যান নারিনের দাপটে পাঞ্জাব জয় কেকেআর-এর

কলকাতা, ১৪ এপ্রিলঃ রহস্য স্পিনার এবার রহস্য ওপেনার। কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে ওপেনিংয়ে গৌতম গম্ভীরের সঙ্গী হিসাবে সুনীল নারায়ণকে দেখে অনেকেই চমকে গিয়েছিলেন। চমকাবারই কথা। ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান কি না নামছেন ওপেন করতে। কিন্তু ষষ্ঠ ওভারে যখন নারায়ণ ফিরলেন তখন উঠে দাঁড়িয়ে তাকে কুর্ণিশ জানাল পঞ্চান্ন হাজারি ইডেন গার্ডেনস।  ১৮ বলে ৩৭ করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের জয়ের আশায় ততক্ষণে জল ঢেলে দিয়েছেন তিনি। বাকি কাজটা অনায়াসেই সেরে আসেন অধিনায়ক গম্ভীর (৪৯ বলে অপরাজিত ৭২), রবীন উথাপ্পা (২৬) ও মণীশ পান্ডে (২৫ অপরাজিত)। নিটফল, মুম্বই ম্যাচে হারের পর ফের জয়ের সরণীতে কেকেআর।  ব্যাটিংয়ে যদি নারয়াণ হিট হন, বল হাতে অবশ্যই সেরা উমেশ যাদব। চোট কাটিয়ে ফিরে এদিন ৪ উইকেট নিলেন তিনি। কার্যত তারই দাপটে ভালো শুরু করেও বড়ো রান করতে পারেনি প্রীতি জিন্টার দল। ইডেনে কেকেআর-এর উদ্‌বোধনী ম্যাচে টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন গম্ভীর। ইডেনের নতুন উইকেটের কথা ভেবে সাকিব আল হাসানের বদলে দলে আসেন নিউজিল্যান্ড কলিন ডিগ্র্যান্ডহোমকে। পাঞ্জাবের হয়ে মনন ভোরা ও হাসিম আমলা শুরুটা ভালোই করেছিলেন। যদিও মননের সহজ ক্যাচ ফেলেন নারায়ণ। অবশেষে ৫৩ রানের মাথায় পীযূশ চাওলার শিকার হন মনন ভোরা (২৮)। এরপর নারায়ণের শিকার হন স্টোইনিস (১)। ক্রিস ওকসের বলে ম্যাক্সওয়েলের ক্যাচ ফেলেন রবীন উথাপ্পা। জীবন পেয়ে শুরু হয় ম্যাক্সওেল ঝড়। যদিও তা দীর্ঘস্থায়ী হয়নি। উমেশ যাদবের শিকার হন ম্যাক্সওয়েল (১৪ বলে ২৫) ডেভিড মিলারকে সঙ্গী করে আক্রমণ শুরু করেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা। ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়ে ১৬ বলে ২৫ করেন ঋদ্ধি। মিলারের সঙ্গে তাঁর জুটিতে ৫৭ রান ওঠে। দুজনকেই ফেরান উমেশ। শেষপর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রান করে পাঞ্জাব। নারায়ণ-গম্ভীরের দাপটে ১৬ ওভারেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় কেকেআর।