বৃহস্পতিবার, জুন ২৯, ২০১৭


Find us on

সাংসদে মমতা

নয়াদিল্লি, ১০ এপ্রিলঃ দিল্লি আসার পর রবিবার সারাদিন তেমন কোনো কর্মসূচী না থাকলেও সোমবার সারাদিনই প্রচণ্ড ব্যস্ততার মধ্যে দিন কাটল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এদিন সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি সংসদে যান। সেখানে সকাল সাড়ে ১০টায় দলের সাংসদদের সঙ্গে একদফা বৈঠক করেন তিনি। এদিন জিরো আওয়ারে সংসদে থাকার জন্য দলের সাংসদের নির্দেশ দিয়েছেন মমতা। সেই সঙ্গে দলের সব সাংসদকে ভদ্র এবং সংযত থাকার নির্দেশও দিয়েছেন তিনি। এদিন সংসদে কে, কী বলবেন, তাও খুঁটিয়ে দেখেছেন।

এছাড়াও বিমানের আসন বিতর্ক নিয়ে দলের সাংসদ দোলা সেনকে তীব্র ভর্ৎসনা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দোলা আত্মপক্ষ সমর্থনে কিছু বলতে গেলে কড়াভাবে তাঁকে চুপ করিয়ে দেন তিনি। বলেন, ‘তোমার জন্য আমাকে অনেক জবাবদিহি করতে হচ্ছে।’ ভবিষ্যতে দোলাকে মাথা ঠান্ডা রাখার নির্দেশও দেন তিনি।

পাশাপাশি, এদিন সকাল সাড়ে ১১টায় প্রবীণ সাংসদ তথা বিজেপি-র প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আদবানির সঙ্গে দেখা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সংসদের চার নম্বর ঘরে তাঁদের মধ্যে প্রায় আধ ঘণ্টা একান্তে আলোচনা হয়। সংসদের এথিকস কমিটির প্রধান আদবানি। নারদ স্টিং অপারেশন বর্তমানে এই এথিকস কমিটির বিবেচনাধীনে রয়েছে। সেই অবস্থায় আদবানি-মমতার বৈঠক স্বাভাবিকভাবেই রাজনৈতিক মহলে কৌতূহল তৈরি করেছে।

এরপর প্রায় ১২টা ১৫ মিনিটে সংসদে মমতার সঙ্গে দেখা করতে আসেন কংগ্রেসের দুই প্রবীণ নেতা গুলাম নবী আজাদ এবং আহমেদ প্যাটেল। তাঁদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা হয়। এরপর ভোট পদ্ধতি নিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা করতে সৌগত রায়, দীনেশ ত্রিবেদীকেও নির্দেশ দিলেন মমতা। জানিয়ে দিলেন, ইভিএমে নয়, ব্যালটেই ভোট চান তিনি।