Find us on

ভুয়ো সন্দেহে আটক ডাক্তার
উত্তরবঙ্গ
কোচবিহার

তুফানগঞ্জ, ১ জুলাইঃ ভুয়ো ডাক্তার সন্দেহে নাককাটি গাছ গ্রাম পঞ্চায়েতের ফারুক বাজার থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করল তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ। ধৃত ব্যক্তির নাম সামসুল হক (৪৮)। তিনি দিনহাটা থানার অন্তর্গত গিতালদহের বাসিন্দা। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়।

বেশ কয়েক বছর থেকেই এই ফারুক বাজারে ঘর ভাড়া নিয়ে চিকিত্সার কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন সামসুল হক। তিনি শুধু ব্যাথা কমানোর চিকিত্সা করেন। স্থানীয়দের বলেন, ‘কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার জেলা এবং প্রতিবেশী রাজ্য অসম থেকে বহু রোগী আসেন। কিন্তু ডাক্তারের রেজিস্টেশন নেই। এর আগে তুফানগঞ্জে দু’জন ভুয়ো ডাক্তার গ্রেফতার হয়েছেন। তাই এক্ষেত্রেও আমরা প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছি। পুলিশ অভিযুক্তকে আটক করেছে। আমরা তুফানগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করব।’

স্থানীয় জনৈক তয়েজ আলি মন্ডল, একাব্বর আলি, ওসমান গণি ও রাহুল শেখ জানান, তুফানগঞ্জে ভুয়ো ডাক্তার ধরা পড়ার পরে সামসুল হক চেম্বার বন্ধ করে চলে গিয়েছিলেন। এদিন তিনি চেম্বার খোলেন। আমরা তাঁর রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও ডিগ্রি দেখতে চাই। তিনি দেখাতে পারেননি।

অন্যদিকে, সামসুল জানিয়েছেন, তিনি বারাসাতের একটি কলেজ থেকে দুই বছরের ডাক্তারি কোর্স করেছেন। তিনি মাত্র অষ্টম শ্রেণি পাস। পরে তিনি আবার বলেন, তিনি ডাক্তারি করেন না। কবিরাজি করেন। নিজের তৈরি ওষুধ তিনি রোগীদের দেন।

তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় অভিযোগের ভিত্তিতে এক ডাক্তারকে আটক করা হয়েছে। লিখিত কোনো অভিযোগ জমা পড়েনি। লিখিত অভিযোগ জমা পড়লেই তদন্ত শুরু হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *