Find us on

চিকিত্সার গাফিলতিতে প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগ, উত্তেজনা হাসপাতালে
জলপাইগুড়ি
শিরোনাম

জলপাইগুড়ি, ৮ অক্টোবরঃ সন্তান প্রসবের পর মৃত্যু মায়ের। পরিজনদের অভিযোগ, চিকিৎসার গাফিলতির করণেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে।

মৃতা ভারতী রায়(৩৫) জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের খারিজা বেরুবাড়ি অঞ্চলের শালবাড়ি হরিমন্দির এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। তাঁর স্বামী প্রকাশ রায় বলেন, বাইরে স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ দেখিয়ে তাঁর পরামর্শ অনুযায়ী তিনি স্ত্রী ভারতীকে গত ৫ অক্টোবর জেলা হাসপাতালে ভরতি করেছিলেন। এর পর হাসপাতালের এর স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখানোর পর তিনি বলেন, সন্তান প্রসবের সময় এখনও আসেনি। সেই কারণে প্রসূতিকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হবে।

একথা শোনার পরই প্রকাশবাবু বাইরে দেখানো ওই চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলেন। প্রকাশবাবুর দাবি, ওই চিকিৎসক সমস্ত রিপোর্ট পরীক্ষা করে বলেন প্রসবের সময় ঠিকই আছে। এই বিষয়টি হাসপাতালের স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞকে বলার পর গতকাল বিকেলে অস্ত্রপচার করা হয় ভারতীদেবীর। একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি। কিন্তু অস্ত্রপচারের পর রাত ৯ টার পর থেকেই ভারতীদেবীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে বলে জানান প্রকাশবাবু। অভিযোগ, অত্যধিক রক্তক্ষরন হলেও হাসপাতালের ওই স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ কোনো ব্যবস্থা নেননি। আজ সকালে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই উত্তেজনা ছড়ায় হাসপাতাল চত্ত্বরে।

ইতিমধ্যে ঘটনার জন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসককে দায়ি করে তদন্তের দাবি করা হয়েছে জেলা হাসপাতাল সুপারের কাছে। তবে ঠিক কি কারণে ওই মহিলার মৃত্যু হয়েছে তা জানার জন্য ময়নাতদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপার ডাক্তার সুশান্ত কুমার রায়। পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রকাশবাবু।

সংবাদদাতাঃ দিব্যেন্দু সিনহা, ছবিঃ সমীর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *