Find us on

প্রতিবন্ধী মহিলার রহস্যমৃত্যু, খুনের অভিযোগ দিদির বিরুদ্ধে
দক্ষিণবঙ্গ
শিরোনাম

কলকাতা, ১০ জানুয়ারিঃ প্রতিবন্ধী মহিলার রহস্যমৃত্যু। ঘটনাটি বেহালার ১৪৩ বি ব্রজেন মুখার্জি রোডের। সম্পত্তি ও পেনশন হাতাতে প্রতিবন্ধী বোনকে নির্যাতন করে খুনের অভিযোগ উঠেছে দিদির বিরুদ্ধে। প্রতিবেশীদের দাবি, মৃতা কাকলি দাসের দিদি-জামাইবাবু তাঁকে খুন করে দেহ লোপাটের চেষ্টা করছিলেন।

অভিযোগ, বিধবা মায়ের ১০ হাজার টাকা পেনশন ও সম্পত্তি হাতাতে প্রতিবন্ধী বোন কাকলি দাসকে খুন করেছে দিদি কেয়া মন্ডল। বিয়ের পর থেকে কেয়া মণ্ডল স্বামী ও সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতেই থাকেন। অভিযোগ, কাকলিকে প্রায়ই মারধর করতেন কেয়া। এমনকি বৃদ্ধা মায়ের ওপরও চলত অত্যাচার। খেতে দেওয়া হত তাঁদের। বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন কাকলি। প্রতিবেশীদের অভিযোগ, মাঝে মধ্যেই শোনা যেত কাকলির চিত্কার। কেয়ার নির্যাতনেই মারা গিয়েছেন সে।

কেয়ার মা নিজেও স্বীকার করে নিয়েছেন অত্যাচারের কথা। কেয়ার দাবি, তাঁর বোন মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। অসুস্থ হয়েই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে কাকলি দাসের দেহ। তদন্তে বেহালা থানার পুলিশ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *