Find us on

স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে
জলপাইগুড়ি
প্রথম পাতা

জলপাইগুড়ি, ৭ ডিসেম্বরঃ স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি পান্ডাপাড়া এলাকায়। অভিযুক্ত স্বামীর নাম অসীম সাহা। তিনি জলপাইগুড়ি পুলিশ লাইনে কর্মরত অ্যাসিস্টেন্ট সাব ইন্সপেক্টর পদে নিযুক্ত। অপরদিকে, ঘটনার অভিযোগ নিতে অস্বীকার করার অভিযোগ উঠেছে জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানার বিরুদ্ধে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে পুলিশ।

২০০৮ সালে জলপাইগুড়ি মোহিত নগরের বাসিন্দা অনন্ত কুমার মোহন্তর মেয়ে অনুরাধা মোহন্তর সাথে বিয়ে হয়েছিল পুরাতন পান্ডা পাড়ার বাসিন্দা অসীম সাহার। জানা গিয়েছে সেই সময় পন হিসেবে শ্বশুর বাড়ি থেকে অসীম বাবু ১ লক্ষ টাকা নিয়ে ছিলেন। বিয়ের ঠিক ২ মাস পর থেকে অনুরাধার ওপর অত্যাচার ও মারধোর শুরু করে অসীম, বেশ কয়েক বার উভয় পরিবারের মধ্যস্ততায় সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করা হলেও তাতে লাভ হয়নি।

গত ৩০ নভেম্বর  দুপুরে অসীমবাবু তাঁর স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করেন বলে অভিযোগ। সেইসময় কোনোভাবে নিজেকে বাঁচিয়ে কোতয়ালি থানার দ্বারস্থ হন অনুরাধাদেবী। অভিযোগ, ৩ ঘণ্টা বসিয়ে রেখেও তাঁর অভিযোগ পত্র জমা নেয়নি পুলিশ। এরপর অনুরাধাদেবীর বাবা থানায় গিয়ে মেয়ের শারীরিক অবস্থা দেখে তাঁকে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান। দীর্ঘক্ষণ কেরোসিন তেল গায়ে থাকার কারণে অনুরাধাদেবীর শরীরে সংক্রামক ছড়িয়ে পড়ে। মঙ্গলবার হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় তাঁকে। বর্তমানে তিনি মোহিতনগরে বাপের বাড়িতে শয্যাসায়ী।

কোতয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার বলেন, ‘অভিযোগ পত্র নেওয়া হয়নি। এই ধরনের অভিযোগ ঠিক নয়। সেইসময় অনুরাধাদেবী এবং তাঁর বাবা ঘটনাটি মৌখিকভাবে জানাতে এসেছিলেন। থানার থেকে বলা হয়েছিল লিখিত আকারে দিতে। পরবর্তীতে তাঁরা কেউ আর লিখিত আকারে অভিযোগ জমা দিতে আসেননি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *