Find us on

শেষ মিনিটের থ্রিলারে সেমিফাইনালে রিয়াল
খেলা
প্রথম পাতা

মাদ্রিদ, ১২ এপ্রিলঃ লক্ষ্য ছিল প্রায় অসম্ভবকে সম্ভব করা। কিন্তু সেই লক্ষ্য প্রায় ছুঁয়ে ফেলাও গিয়েছিল। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। মাদ্রিদের মাঠে রূপকথা লিখতে গিয়েও ব্যর্থ হল জুভেন্তাস। শেষ মুহূর্তের পেনাল্টিতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে গেল ‘ওল্ড লেডি অফ দ্য তুরিন।’ সবমিলিয়ে ৪-৩ গোলে জিতে সেমিফাইনালে গেল রিয়াল মাদ্রিদ।

জুভেন্তাসকে তাদের মাঠেই ৩-০ গোলে হারিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সৌজন্যে সেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সেই বিখ্যাত বাইসাইকেল কিক। রিয়াল মাদ্রিদকে তাদের ঘরের মাঠে ৪-০ গোলে হারাতে হবে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে পৌঁছাতে এই অঙ্কই ছিল জুভেন্তাসের সামনে। যা একপ্রকার অসম্ভবই মনে করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু আগের রাতে আরেক স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনাকে ইতালিরই আরেক ক্লাব রোমার কাছে ধ্বংস হয়ে যাওয়া দেখে বোধহয় রসদ পেয়ে গিয়েছিলেন জুভেন্তাসের ফুটবলাররা। প্রথম থেকেই সান্তিয়াগো বের্নাবৌ দখল নিয়ে নিলেন বুঁফো, চিয়েল্লিনি, মান্দুকিচরা। ম্যাচের দু মিনিটেই গোল মান্দুকিচের। ৩৭ মিনিটে ফের তার করা গোলেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় জুভে। মাঠে তখন দূরবিন দিয়ে খুঁজতে হচ্ছে রোনাল্ডোকে। একের পর এক মিস পাস রিয়ালকে আরও চাপে ফেলে দেয়। বিরতির পর ৬০ মিনিটে মাতুইদির গোলের পরই হতাশা গ্রাস করে রিয়াল সমর্থকদের। ম্যাচের ফলাফল দুই লেগ মিলিয়ে তখন ৩-৩। একটা গোল করতে পারলেই নয়া ইতিহাস লিখে ফেলবেন বুঁফোরা। যদিও তা হয়নি। এরপরই নাটক শেষ মিনিটে। ইনজুরি টাইমও তখন প্রায় শেষ। রিয়ালের ভাসকোয়েজকে বক্সের মধ্যে ফাউল করে বসেন বেনেশিয়া। রেফারি পেনাল্টি দিলে তর্ক করতে শুরু করেন জুভে অধিনায়ক বুঁফো। পরিণামে সরাসরি লালকার্ড। পরিবর্ত গোলকিপার নামলেও রোনাল্ডোর শট আটকাতে পারেননি তিনি।

শেষ মিনিটের থ্রিলারে সেমিফাইনালে রিয়াল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *