শনিবার, জুলাই ২২, ২০১৭


Find us on

রোজভ্যালিকাণ্ডে জামিন পেলেন সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

কটক, ১৯ মেঃ রোজভ্যালিকাণ্ডে গ্রেফতার হওয়ার প্রায় সাড়ে চার মাস পর জামিন পেলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার সকালে ওডিশা হাইকোর্ট সিবিআই-এর আর্জি খারিজ করে দিয়ে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের শর্তাধীন জামিন মঞ্জুর করেছে। ২৫ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বেল বন্ডে জামিন পাচ্ছেন তিনি। এদিন তাঁর জামিনের ক্ষেত্রে দুটি শর্ত আরোপ করেছে আদালত। প্রথমত, তাঁকে পাসপোর্ট জমা রাখতে হবে। দ্বিতীয়ত, তিনি সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারবেন না। সূত্রের খবর, সম্ভবত আগামীকাল শনিবার তিনি ছাড়া পাবেন।

দিন দশেক আগে সুদীপবাবুর আইনজীবীরা ওডিশা হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করে বলেছিলেন, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় গুরুতর অসুস্থ। স্বাস্থ্যের কারণেই তাঁকে জামিন দেওয়া হোক। জামিনের বিরোধিতা করে সিবিআই-এর আইনজীবী রাঘবচারুলু বলেছিলেন, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় খোদ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখতে এসেছিলেন। তিনি অত্যন্ত প্রভাবশালী। জামিন পেলে তিনি সাক্ষীদের প্রভাবিত করতে পারেন। তাছাড়া সুদীপবাবু গুরুতর অসুস্থ নন। তিনি অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালীন মেডিকেল বিল হয়েছে ১৪ লক্ষ টাকা। তার মধ্যে ১১ লক্ষ টাকাই লেগেছে তিনি যে ঘরে রয়েছে তার ভাড়া গুণতে। সুতরাং তাঁর জটিল কোনো অসুখ হয়নি। তেমন চিকিৎসারও প্রয়োজন হচ্ছে না। দীর্ঘ সওয়াল-জবাব শোনার পর আদালত এদিন তৃণমূল সাংসদের জামিন মঞ্জুর করেছে।

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের জামিনে খুশি হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘সুদীপদার শরীর খুব খারাপ। তাঁকে আমি দেখে এসেছি। এই কয়েকদিন খুব কষ্ট পেয়েছেন। আমি যখন তাঁকে দেখেছি, তখন তাঁর ওজন ১০ থেকে ১২ কেজি কমে গিয়েছিল। এখন কেমন আছেন জানি না। কলকাতায় ফিরে এসে বিশ্রাম নিন।’

পাশাপাশি, স্ত্রী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমি এখনই এই নিয়ে কিছু বলব না। এটি একটি বিচারাধীন বিষয়। যা বলার দলই বলবে।’