Wednesday, February 28, 2024
HomeExclusiveCoochbehar CPM | সিপিএমের জেলা কার্যালয়ের সেই ভিড় উধাও

Coochbehar CPM | সিপিএমের জেলা কার্যালয়ের সেই ভিড় উধাও

জেলা কার্যালয়ের এই অবস্থায় হতাশ দলের নীচু স্তরের অনেক কর্মীই। অন্তত হোলটাইমাররা নিয়মিত যাতায়াত রাখুন, তাঁরা এমনটাই চাইছেন।

শিবশংকর সূত্রধর, কোচবিহার: অনেকদিন আগেই পার্টি কমিউন উঠে গিয়েছে। হাতেগোনা পূর্ণ সময়ের কয়েকজন কর্মী (হোলটাইমার) থাকলেও সবসময় তাঁদের দেখা মেলে না। মাঝেমধ্যে দুয়েকজন নেতা এসে বসেন ঠিকই তবে দুই-তিন ঘণ্টা থেকেই চলে যান। সিপিএমের কোচবিহার (Coochbehar CPM) জেলা কার্যালয় বাকি সময় খাঁখাঁ করে। সেখানে এমনও অনেক ঘর রয়েছে যেগুলির দরজার তালা বহুদিন খোলা হয়নি।

জেলা কার্যালয়ের এই অবস্থায় হতাশ দলের নীচু স্তরের অনেক কর্মীই। অন্তত হোলটাইমাররা নিয়মিত যাতায়াত রাখুন, তাঁরা এমনটাই চাইছেন। দলের জেলা সম্পাদক অনন্ত রায় অবশ্য বলেন, ‘এটা ঠিকই যে এখন কমিউন নেই। তবে জেলার প্রতিটি জায়গাতেই আমাদের কর্মী রয়েছেন। তাঁরা স্থানীয় স্তরে সেখানকার কার্যালয়ে কর্মসূচি সারেন। সেজন্য সবসময় তাঁদের জেলা কার্যালয়ে আসা হয় না।’

কোচবিহার (Coochbehar) শহরের আরএন রোডের পাশেই তিনতলা ভবনে সিপিএমের জেলা কার্যালয় (CPM Office) রয়েছে। সম্প্রতি সেখানে ঢুকতেই দেখা গেল প্রবেশপথের বাঁ দিকে গ্যারাজ সংস্কারের কাজ চলছে। সামনে দলীয় পতাকা উড়ছে। ভেতরে ঢুকে প্রথম তলাতেই সেমিনার ঘর রয়েছে। সেখানে সম্মেলন বা দলীয় বড় কর্মসূচি করা হয়। প্রথম তলায় অফিস সংক্রান্ত কাজকর্ম করা হয়। সেখানে ছোট বৈঠক করার জায়গা রয়েছে। পাশেই একটি ঘর তালাবন্ধ অবস্থায় দেখা গেল। এই ঘরে দলের আইটি সেলের কাজকর্ম করা হয়। ভোটের সময় এখানে তরুণ কর্মীদের আনাগোনা থাকে। তিনতলায় বেশ কিছু ঘরে থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। রাজ্য থেকে দলীয় নেতারা এলে এখানেই থাকেন। জেলার অন্য এলাকা থেকে কেউ দলীয় কাজে এলেও এখানে থাকার সুযোগ পান। তবে বেশিরভাগ সময়ই এই ঘরগুলি তালাবন্ধ থাকে। জেলা কার্যালয়ের ভেতরে আন্তর্জাতিক স্তর থেকে স্থানীয় স্তরের বাম নেতৃত্বরও ছবি টাঙানো রয়েছে। কিছু পরিষ্কার, আবার কিছু ছবিতে ধুলো জমেছে।

জেলা কার্যালয় রক্ষণাবেক্ষণের জন্য তিনজন কেয়ারটেকার রয়েছেন। তাঁরাই পালা করে দায়িত্ব সামলান। বলতে গেলে, একমাত্র তাঁরাই পুরো সময় সেখানে থাকেন। দলে বর্তমানে প্রায় ৪৫ জন হোলটাইমার কর্মী রয়েছেন। তবে দলীয় কার্যালয়ে দলের জেলা সম্পাদক অনন্ত রায় ও সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মহানন্দ সাহাকে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। রাজ্যে ক্ষমতা হারানোর পর বামফ্রন্টের কার্যালয়গুলি ক্রমেই ফাঁকা হতে থাকে। কোচবিহারেও সিপিএম ধীরে ধীরে দুর্বল হতে থাকে। বর্তমানে এমন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে যে অধিকাংশ সময় জেলা কার্যালয়ে গেলেও নেতাদের দেখা মেলে না।

বিষয়টি দলের কর্মী–সমর্থকদের বেশ দুঃখ দেয়। তাঁদেরই একজনের কথায়, ‘কার্যালয়ের এমন দুর্দশা দেখে খুবই খারাপ লাগে। আগে যখন এখানে আসতাম, জায়গাটি গমগম করত। নেতাদের কথা শুনে উদ্বুব্ধ হতাম। এখন হওয়ার সুযোগ নেই। থাকবেই বা কী করে! সেভাবে তো কারও দেখা মেলে না।’

Kuhelika Barman
Kuhelika Barmanhttps://uttarbangasambad.com/
Kuhelika Barman is working as Sub Editor Since 2016. Presently she is attached with Uttarbanga Sambad Digital. She is involved in Copy Editing, Uploading in website and various social media platforms.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -
- Advertisment -spot_img

LATEST POSTS

CAA Implementation | মার্চেই দেশে সিএএ! লোকসভা নির্বাচনের আগেই ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র  

0
উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্কঃ লোকসভা নির্বাচনের আগেই দেশে কার্যকর হতে চলেছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা সিএএ। এমনই  ইঙ্গিত দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা। সূত্রের...

Himachal Pradesh | কংগ্রেসের হাতছাড়া হতে চলেছে হিমাচল প্রদেশ! বিধায়ক ভাঙানোয় অভিযুক্ত বিজেপি   

0
উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্কঃ বিধানসভা নির্বাচনে জিতে এক বছর হয়নি হিমাচল প্রদেশে সরকার গড়েছে কংগ্রেস। আর লোকসভা নির্বাচনের আগেই হিমাচল হতে পারে কংগ্রেসের হাতছাড়া।...

Leave BJP, join Trinamool | ভোটের মুখে ফুলবদল, বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ এক পঞ্চায়েত...

0
মালবাজারঃ দুয়ারে লোকসভা ভোট। আর তার আগেই তৃণমূলে যোগ দিলেন বিজেপির এক গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য। মঙ্গলবার মাল শহরের পাশে রাজা চা বাগানের ধোবি মাঠে...

Uttar Dinajpur Fire | বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে ভস্মীভূত পরপর বাড়ি, সর্বস্ব খুইয়ে পথে বসেছে চারটি...

0
কালিয়াগঞ্জ: বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ডে (Uttar Dinajpur Fire) ভস্মীভূত চারটি বাড়ি। পুড়ল একই পরিবারের ঘরে রাখা নগদ দেড় লক্ষ টাকা। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটে কালিয়াগঞ্জ (Kaliyaganj)...

Old women died | ডাক্তার দেখিয়ে ঘরে ফেরা হল না, বাইক থেকে পড়ে পথেই...

0
ঘোকসাডাঙ্গাঃ মঙ্গলবার ছেলের সঙ্গে বাইকে ফালাকাটায় ডাক্তার দেখাতে গিয়েছিলেন ৬৭ বছর বয়সী সন্ধ্যারানী সরকার। ডাক্তার দেখিয়ে ফেরার পথে কোচবিহার চা বাগান সংলগ্ন এলাকায় মোটরবাইক...

Most Popular