Sunday, July 21, 2024
Homeরাজ্যউত্তরবঙ্গTeesta River | বন্যা নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু দেরিতে, বিপদ ঘনাচ্ছে তিস্তার পাড়ে

Teesta River | বন্যা নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরু দেরিতে, বিপদ ঘনাচ্ছে তিস্তার পাড়ে

জলপাইগুড়ি: গতবছর সিকিমের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের তিস্তা নদী (Teesta River) চরিত্র সামান্য বদলেছে। বন্যা প্রবণতা বাড়ার আশঙ্কায় সেচ দপ্তর প্রস্তুত হতে শুরু করে। রাজগঞ্জ ব্লকের মিলনপল্লির ও বীরেন বস্তি এলাকায় তিস্তা নদীতে বন্যা নিয়ন্ত্রণের তৎপরতা দেখায় দপ্তর। কিন্তু লোকসভা নির্বাচন ২০২৪-এর কারণে রাজগঞ্জ ব্লকের ওই দুই এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণের কাজ শুরুতে দেরি হয়। মিলনপল্লিতে সেই কাজ প্রবল স্রোতের কারণে বন্ধ করতে হল সেচ দপ্তরকে।

সেচ দপ্তরের উত্তর-পুর্ব বিভাগের চিফ ইঞ্জিনিয়ার কৃষ্ণেন্দু ভৌমিকের বক্তব্য, ‘সময়মতো মিলনপল্লির কাজ শুরু করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু লোকসভা ভোটের বিধিনিষেধ চালু হয়ে যাওয়ায় কাজ শুরু করতে পারিনি। কমিশনকে চিঠি লেখার পরে যদি সময়মতো অনুমতি পেতাম তাহলে কাজ অনেক দূর এগিয়ে যেত। এখন ভরা বর্ষাতে জলের স্রোত প্রবল থাকায় কাজ আপাতত স্থগিত রাখতে বাধ্য হয়েছি।’

সেচ দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, মিলনপল্লি ও বীরেন বস্তিতে অনেক আগেই বন্যা নিয়ন্ত্রণের কাজ করেছিল দপ্তর। কিন্তু সিকিমের ঘটনার পর পাহাড় থেকে সমতল এলাকাতে তিস্তার নদী চরিত্র বিশেষে পরিবর্তিত হয়েছে। কোথাও একাধিক চ্যানেল করে তিস্তা প্রবাহিত হচ্ছে। আবার কোথাও প্রচুর পলি জমে নদীগর্ভ অগভীর হয়ে উঠেছে। কোথাও আবার পাড়ে আঘাত করে ভূমিক্ষয় করছে।

গত বছর সিকিমের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের পর তিস্তা তার গর্ভে বালি, নুড়ির আস্তরণ পুরু করে বিছিয়ে দিয়েছে। গজলডোবা তিস্তা ব্যারেজ থেকে বেরিয়ে মিলনপল্লি এলাকায় তিস্তার চরজুড়ে পলি, বালির মোটা আস্তরণ তৈরি হয়েছে। ফলে নদীর চ্যানেল কিছুটা ডানদিকে ঘুরে পাড়ে ধাক্কা মারছিল। এই অবস্থায় সেচ দপ্তর ডানদিকের বাঁধে ১.৪৫ কিমি এলাকাজুড়ে প্রোটেকশন ওয়ার্ক দ্রুত শুরু করতে চেয়েছিল। যার খরচ মোটামুটি প্রায় ১ কোটি ৭২ লক্ষ টাকা। কিন্তু নির্বাচনি বিধির কারণে কাজ দেরিতে শুরু করতে হয়। কিন্তু তিস্তার জলের স্রোত বাড়ায় সেই কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে সেচ দপ্তর।

তিস্তার পাশে বীরেন বস্তি এলাকাতেও তিস্তার নদীবক্ষে প্রচুর পলি, বালি জমা হয়েছে। এখানে তিস্তা নদীর ডানদিকের নদীবাঁধের ১.৪ কিমি এলাকাজুড়ে বাঁধের অংশ উঁচু করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। ভূমিক্ষয় প্রতিরোধের করে বন্যা নিয়ন্ত্রণের প্রকল্পের খরচ ধরা হয় ১ কোটি ৪৪ লক্ষ টাকা। কিন্তু এখানে এখনও কাজ শুরু করাই সম্ভব হয়নি। তিস্তার জল বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চিন্তা বাড়ছে সেচ দপ্তরের।

Shahini Bhadra
Shahini Bhadrahttps://uttarbangasambad.com/
Shahini Bhadra is working as Trainee Sub Editor. Presently she is attached with Uttarbanga Sambad Online. Shahini is involved in Copy Editing, Uploading in website.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -
- Advertisment -spot_img

LATEST POSTS

21 July TMC Rally | ‘২৬-এ মালদার আম-আমসত্ত্ব আমরা পাবই’, শহিদ মঞ্চে দাবি মমতার

0
উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: ‘২০২৬-এ মালদার আম-আমসত্ত্ব আমরা পাবই।’ রবিবার ধর্মতলায় (Dharmatala) ২১ জুলাইয়ের মঞ্চ (21 July TMC Rally) থেকে এমনই দাবি করলেন তৃণমূল...

Karnataka | দিনে ১৪ ঘণ্টা কাজ! কর্ণাটকের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলির প্রস্তাবের বিরোধিতা কর্মীদের

0
উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: দিনে ১৪ ঘণ্টা কাজ করার একটি প্রস্তাব (Proposal) কর্ণাটক (Karnataka) সরকারের কাছে পেশ করেছে রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি (IT firms)। এই...

Bangladesh Supreme Court Verdict | সংরক্ষণ নিয়ে হাইকোর্টের রায় খারিজ, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে বড়...

0
উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: বড় জয় কোটা বিরোধী আন্দোলনকারীদের। ফিরছে পুরোনো নিয়মই। ৯৩ শতাংশ নিয়োগ হবে মেধার ভিত্তিতে। সংরক্ষণ নিয়ে হাইকোর্টের রায় খারিজ করে...

Counterfeit foreign liquor | বাড়ছে নকল বিদেশি মদের কারখানা, আশঙ্কায় চিকিৎসক মহল

0
শিলিগুড়ি: পড়শি রাজ্যে মদের ওপর নিষেধাজ্ঞাই কি উত্তরবঙ্গে নকল মদ তৈরির বাড়বাড়ন্তের কারণ? প্রাথমিক তদন্ত কিন্তু সেটাই বলছে। উত্তরে নকল বিদেশি মদের চল্লিশটি কারখানার...

নিষিদ্ধ খোকা ইলিশে ছয়লাপ আলিপুরদুয়ার, উদ্বিগ্ন পরিবেশকর্মীরা

0
আলিপুরদুয়ার: সাধ্যের মধ্যে সাধপূরণ করতে গিয়ে নিয়ম ভাঙছে আলিপুরদুয়ার। শহরের বিভিন্ন বাজারে ১০০-১৫০ গ্রাম ওজনের খোকা ইলিশ দেদারে বিক্রি হচ্ছে। মৎস্য দপ্তর সূত্রে জানা...

Most Popular