Find us on

উচ্চ আদালতে রায়ের পরেও মেলেনি টাকা, হতাশায় প্রতারিতরা
উত্তরবঙ্গ
দক্ষিণ দিনাজপুর

কুশমণ্ডি, ২৯ মেঃ পোস্ট অফিসে টাকা জমা রেখে পোস্ট মাস্টার দ্বারা প্রতারিত হওয়ার ৬ বছর পরেও সেই টাকা ফেরত পাননি গ্রাহকরা। এমনকি জেলা কনজিউমার্স ফোরাম থেকে উচ্চ আদালতের রায়কেও মান্যতা দিচ্ছে না পোস্টাল দপ্তর, এমনই অভিযোগ গ্রাহকদের। ঘটনাটি কুশমণ্ডি ব্লকের ঊষাহরণ পোস্ট অফিসকে ঘিরে।

২০১১ সালের ১৯ মে ঘটনার সূত্রপাত। ওই দিন ঊষাহরণ পোস্ট অফিসের পোস্ট মাস্টার অসিতকুমার ঘোষ হঠাত্ই বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন। এরপরই বের হয়ে আসে পোস্ট মাস্টারের আত্মহত্যার কারণ। জানা যায়, গ্রাহক ফিক্সড ডিপোজিট করতে এলে পোস্ট মাস্টার আসল সার্টিফিকেট কিনে বাকিগুলি গ্রাহকদের কালার জেরক্স করে দিতেন। গ্রামের অনেকেই তা বুঝতে না পেরে জাল সার্টিফিকেটই বাড়িতে রেখে দেন। পোস্ট মাস্টারের মৃত্যুর পরই গ্রাহকরা এই ব্যাপারে জানতে পারেন। বেশ কয়েক লক্ষ টাকা জালিয়াতির অভিযোগ নিয়ে ২০১২ সালে জেলা কনজিউমার্স ফোরামে অভিযোগ করেন ২১ জন গ্রাহক।

এদিন গ্রাহকরা জানান, ২০১২ সালে জেলা কনজিউমার্স ফোরামে কেস করে টাকা ফেরতের রায় পাওয়া যায়। এরপর উচ্চ আদালত জেলা কনজিউমার্সের রায়কে বহাল রাখে। তা সত্ত্বেও পোস্টাল দপ্তর প্রতারিত গ্রাহকদের টাকা ফেরত না দেওয়ায় গত ২০১৬ সালে শেষ মামলা করেন গ্রাহকরা। তবে এখনও ওই টাকা গ্রাহকদের হাতে আসেনি।

তবে বঞ্চিত গ্রাহকদের আইনজীবী দেবাশিস বর্মন জানান, পোস্টাল দপ্তর সহজেই এই সমস্যার সমাধান বহু আগে করতে পারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *