শনিবার, জানুয়ারি ২১, ২০১৭


Find us on

শেষপর্যন্ত ক্যাশলেসে ধান কেনার সিদ্ধান্ত রাজ্যের

উত্তরবঙ্গ সংবাদ পোর্টাল, ১১ ডিসেম্বরঃ বড়ো নোট বাতিলের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মুখর হয়েছে রাজ্য সরকার। নিত্য কড়া সমালোচনার মাঝে রাজ্যের খাদ্য দপ্তরই এবার ঘুরিয়ে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের পথে হাঁটছে। নোট সমস্যার জের হিসাবে দেখাতে চাইলেও বাস্তবে নরেন্দ্র মোদির ‘ক্যাশলেস ইকোনমি’র হাত ধরে ন্যায্যমূল্যে ধান কিনে এবার সরাসরি কৃষকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এর ফলে রাজ্যে ধান কেনা নিয়ে যে দুর্নীতি কমবে তাও ঘুরিয়ে স্বীকার করে নিয়েছেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। রবিবার মন্ত্রী বলেছেন, সোমবার থেকে রাজ্যের সর্বত্রই ধান কেনার জন্য কৃষকদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। ধান বিক্রি করার ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই কৃষকদের নিজস্ব ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা দিয়ে দেওয়া হবে। স্থানীয়ভাবে নয়, পুরো বিষয়টিই কেন্দ্রীয়ভাবে কলকাতা থেকে দেখা হবে।

কীভাবে হবে পুরো প্রক্রিয়া? রবিবার খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, সোমবার থেকেই জেলাগুলির ধান ক্রয়কেন্দ্রে কৃষকদের রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। অর্থাৎ যাঁরা ধান বিক্রি করতে চান তাঁদের আগে ধান বিক্রয়কেন্দ্রগুলিতে গিয়ে নিজের ব্যাংকের নাম, অ্যাকাউন্ট নম্বর, আইএফএসসি নম্বর, নিজের টেলিফোন নম্বর দিতে হবে। এই পুরো তথ্যই অনলাইনে কলকাতার খাদ্য ভবনেও চলে যাবে। এর পরেই সেই বিক্রয়কেন্দ্র থেকে সংশ্লিষ্ট কৃষকের ছবি সহ একটি কার্ড দেওয়া হবে। তিনদিন রেজিস্ট্রেশন চলার পরে চতুর্থ দিন থেকেই ধান কেনা শুরু হবে। কৃষক ধান বিক্রি করতে এসে ওই কার্ড দেখাবেন। সেই মতো সেই বিক্রয়কেন্দ্র থেকে সরাসরি ইনটারনেট ব্যবস্থার মাধ্যমে কলকাতার খাদ্য ভবনে কোন কৃষক কত ধান দিয়েছেন তার হিসাব চলে যাবে। ধান বিক্রির ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই সংশ্লিষ্ট কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা পৌঁছে যাবে। সঙ্গে সঙ্গে ওই কৃষককে মোবাইলে মেসেজ করে তা জানিয়েও দেওয়া হবে।