Find us on

কিশোরী অপহরণে যুবকের সশ্রম কারাদণ্ড
জলপাইগুড়ি
শিরোনাম

জলপাইগুড়ি, ১৪ মার্চঃ অপহরণ করে বাংলাদেশে নিয়ে গিয়ে ভারতীয় কিশোরীকে বিয়ে করে ফের গোপনে ভরতে প্রবেশ করার অপরাধে এক বাংলাদেশি নাগরিককে সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করল জলপাইগুড়ি জেলা আদালত। গত সোমবার জেলা আদালতের পক্ষ থেকে চন্দন রায় নামে ওই বাংলাদেশি নাগরিককে এই ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়। মঙ্গলবার জেলা আদালতের অতিরিক্ত দায়রা থার্ড কোর্টের বিচারক রাজীব সাহা অভিযুক্তকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাদণ্ডের সাজা শুনিয়েছেন বলে সরকারি আইনজীবী সঞ্জয় দাস জানান।

ঘটনা সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, জলপাইগুড়ি শহরের দেবনগর এলাকার বাসিন্দা এক কিশোরী ২০১৩ সালের মার্চ মাসে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যায়। একবছর পর পরিবারের লোকজন জানতে পারে তাকে বলপূর্বক অবহরণ করে নিয়ে গিয়েছে বাংলাদেশের রংপুর জেলার লালমণিহাটের বড়বাড়ি এলাকার বাসিন্দা চন্দন রায় নামে এক যুবক। এরপরেই কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়।

দু’বছর পর ২০১৬ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর কিশোরীকে নিয়ে ফের অবৈধভাবে ভারতে এসে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় চন্দন রায় নামে ওই যুবক। প্রায় দেড় বছর ধরে চলা এই মামলায় নয় জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। সোমবার দোষী সাব্যস্ত করারা পরে বিচারক তার সাজা ঘোষণা করেন।

সংবাদদাতাঃ দিব্যেন্দু সিনহা

কিশোরী অপহরণে যুবকের সশ্রম কারাদণ্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *