Find us on

সন্তানের সুস্বাস্থ্য চান? নিয়মিত থোড় খাওয়ান
জীবনযাপন

কলাগাছের প্রতিটি অংশ ছোটো-বড়ো সবার জন্য খুব ভালো। মোচা বা কলার মতোই পুষ্টিগুণে ভরপুর গাছে কাণ্ড থোড়

১. হিমোগ্লোবিন বাড়ায়, কোলেস্টেরল কমায়ঃ থোড়ের মধ্যে থাকা ভিটামিন বি ৬ আর আয়রন রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বাড়ায়। একইভাবে এর মধ্যে থাকা পটাশিয়াম কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে।

২. হজমে সাহায্য করে, পেট পরিষ্কার করেঃ থোড়ের রস হজমে সাহায্য করে। পোট পরিষ্কার রাখে। বাচ্চা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগলে চোখ বুজে রোজ থোড় খাওয়ান। সমস্যা কমবে।

৩. গলব্লাডার পরিষ্কার, কিডনি স্টোনমুক্তঃ নিয়মিত থোড়ের রসে এলাচগুঁড়ো মিশিয়ে খেলে গলব্লাডার পরিষ্কার থাকে। বাচ্চার ইউরিনের সমস্যা থাকলে থোড়ের রসে কয়েকফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে খাওয়ান। ইউরিন পরিষ্কার হওয়ার পাশাপাশি কখনও কিডনিতে স্টোন হবে না।

৪. ফ্যাট ঝরায়, সুগার কমায়ঃ থোড় ফাইবারে সমৃদ্ধ। এই উপাদান ফ্যাট এবং সুগার দুই শত্রুকেই নিয়ন্ত্রণে রাখে।

৫. অ্যাসিডিটি ভ্যানিশঃ সারাক্ষণ জাংক ফুড খাওয়ার ফলে আজকাল ছোটো-বড়ো সবাই অম্বলে ভোগে। এই কষ্ট কমাতে চাইলে সকালে খালিপেটে অবশ্যই থোড়ের রস খেতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *